Purnima Uwriter.club

পূর্ণিমা

সেদিন ছিলো ভরা পূর্ণিমা
শত চেষ্টায়ও ঐ রাতে চোখের পাতাগুলো এক হয়নি
কারণটা জানো? না জানতে ইচ্ছে করে?
ভর দুপুরে আমাকে করেছিলো স্তব্ধ
দোষটা তবে কার?
তোমার? না তোমার হাসতে থাকা মুখটার?

জানো? আমি কখনোই ভালোবাসায় বিশ্বাসী ছিলাম না।
মনে হতো সত্যিকার ভালোবাসার মৃত্যু হয়ে গেছে
কিন্তু তোমায় দেখে জেনেছি ভালোবাসা শব্দটা অমর
তাইতো আজও বিশ্বাস করি তুমি একদিন আসবে।

শুনেছিলাম তোমার ভেজা চোখ বালিশ ভেজায়
তবে তুমি কি জানো কষ্টটা কেবল তোমারই নয়?
তোমার বন্ধুদের কাছ থেকে তোমায় জানতাম
খুব ইচ্ছে করতো একটু একটু করে তোমায় জানার
কিন্তু তুমি যে আমায় ভুল বুঝবে।

ভাববে হয়তো সুযোগ নিতে এসেছি
কিন্তু তুমি জানো না সবাই সুযোগ নিতে আসে না
কেউ কেউ আসে সুযোগ সৃষ্টি করতে
কিন্তু তোমায় বুঝাবো কিভাবে?
আমিও যে দেখতে মানুষের মতোই।

শহরের সবচেয়ে ভালো-খারাপ মানুষের চেহারা একই
দিনে যারা ভালো মানুষ সাজে রাতে তারাই মুখোশ খুলে
তবে আমার কোন মুখোশ নেই প্রিয়।
আমার আছে একটা অর্ধেক মৃত মন
যে মনে তুমি আবার দিয়েছো প্রাণ।

তোমায় নিয়ে স্বপ্ন দেখতে ইচ্ছে করে না
কারণ তুমি নিজেই তো একটা বাস্তবতা
তবে স্বপ্ন দেখার কি প্রয়োজন?
আসবে কি একদিন এই মৃত মানুষের কাছে?

জানি বিশ্বাস করতে কষ্ট হবে আমায়
তবে ভয় নেই তোমার
আমি কোন ধর্ষক নই
আমিও একটা পাগল
তোমারই মতন ভালোবাসার পাগল
ভালোবাসি তোমায় প্রিয়
তোমার হাসতে থাকা মুখটার দিব্যি দিয়ে বলছি
আমি ভালোবাসতে এসেছি
তোমার চোখের জল হতে না।

About the Author দুর্জয় দাশ গুপ্ত

একজন ক্ষুদে লেখক। গত দুবছর ধরে অমর একুশে বইমেলায় গল্পের এবং কবিতার বইয়ে তার লেখা প্রকাশিত হয়েছে।

follow me on:

Leave a Comment: