ও তো ওই

দিন যায় রাত যায় ।কিন্তু ও ওর মতো থাকে ।ওর সাথে কারও তুলনা হয় না ।ওর কাছে দিন রাত আর রাত দিন ।ও রাতে জেগে থাকে আর দিনে ঘুমায় । ও স্কুল এ যায় । প্রেম-টেম তেমন নেই । কিন্তু একটা মেয়েকে ওর ভালো লাগে । তাকে ও কথাটা বলতে পারে না । মেয়েটি দশম শ্রেণীতে পড়ে । ও মনে করে এসব না করাই ভালো । ও মাঝে-মাঝে বন্ধুদের সাথে আড্ডা দেয় । কিন্তু এর আগে ও আড্ডা দিত না । কয়একদিন হল ও কেমন যেন অন্য রকম হয়ে গেছে । এটা ওর কোন পরিবর্তন নয় । এটা ওর ভ্রম । ও চায় অনেক বড় কিছু হতে । মাঝে-মাঝে ওর মনে হয় জীবনে বেশি বড় কিছু না হয়ে সৎ হওয়া বেশি প্রয়োজন । এটা আসলেই ঠিক । ও মনীষীদের জীবন অনুসরণ করতে চায় । কিন্তু পারে না । ও মা-বাবার সাথে ভালো ব্যাবহার করতে চায় । মাঝে-মাঝে পারে না । সর্বোপরি ও ভালো হতে চায় । কিন্তু মাঝে-মাঝে অনেকের সাথে খারাপ ব্যাবহার করে ফেলে । মানুষের ভালো করার জন্য ও এগিয়ে আসে । ও একেবারেই অন্য রকম । ও কে কেউ বুঝতে পারে না । ওর ভালো কলেজ এ পড়ার অনেক ইচ্ছা ছিল । কিন্তু গ্রামে থাকার কারণে শহরের ভালো কলেজ এ পরতে পারে নি । ও লেখা-পড়ায় ছিল মোটামুটি । কিন্তু ও অনেক বড় জ্ঞানী হতে চায়ত । শুধু জ্ঞান থাকলেই জ্ঞানী হওয়া যায় না । জ্ঞান ধারনের জন্য প্রয়োজন জ্ঞানের সুষ্ঠু প্রয়োগ, এ কথাটি ও বুঝত না । ও মাঝে-মাঝে লেখা-পড়ার জন্য অনেক চিন্তা করত । আবার মাঝে-মাঝে করত না । ও ছিল শারীরিক ও মানসিক ভাবে দুর্বল । কিন্তু তাও ও পরিশ্রম করতে চাইত । ওর বন্ধুরা ওকে ছ্যাবলা,আবাল,বলদ ইত্যাদি বলে ক্ষেপাইতো । কিন্তু ও এতে কিছু মনে করত না । ও কারও সাথে তেমন ঝগড়া-মারামারি করত না । ওকে যদি কেউ মারত তাহলে ওর বাড়ির লোকেরা ওকেই বেশি কথা বলত । কয়একদিন হল ও চুপ-চাপ হয়ে গেছে । মাঝে-মাঝে ওই মেয়েটার কথা মনে পড়ে । কিন্তু ও মেয়েটাঁকে ভুলে থাকতে চায় । ইদানীং ওর অনেক ভ্রমন এর সখ হয়েছে । ও নানান জায়গায় বেড়াতে যায় । ইদানীং ও অনেক শান্তিপূর্ণ হয়ে গেছে । চুপ-চাপ এর মাঝখানে ও এখন শান্তি খুঁজে পায় । ওর ভালো লাগাকে এখন কারও সাথে শেয়ার করতে চায় না । মনে করে, সবায়ই পর । কিন্তু মা-বাবার সাথে ওর মোটামুটি ভালো সম্পর্ক । ও সম্পর্কের ভাব গুলোকে এখন বজায় রাখতে চায় । ওর স্বাস্থ্য এখন জীর্ণ-শীর্ণ হয়ে গেছে । ও এখন মোটামুটি খাওয়া-দাওয়া করে । আজকের এ ডিজিটাল যুগের প্রতি ওর আগ্রহ অনেক বেশি । ও ভাবে ও একটা কিছু করবেই । কিন্তু ওর মাথায় কিছু আসে না । ও ভাবে ও ভাবতে থাকে, কিন্তু ওর মাথায় কিছু আসে না । টাইম মেশিন এই বিষয়টি নিয়ে ওর আগ্রহ অনেক । কিন্তু এটায় হবে না । ওর দরকার অনেক ভালো কিছুর আভাস । বিশ্ব ভ্রমনের ওর অনেক সখ কিন্তু ও ভাবে ও কি পারবে! ও পৃথিবীতে অন্যান্য হয়ে থাকতে চায় । কিন্তু ভাবে পৃথিবী তো কয়াকদিনের আবাস । তাই সৎকর্মের মাধ্যমে পৃথিবীতে টিকে থাকা জরুরি । ও মাঝে-মাঝে পাগলের মতো আচারন করে । কিন্তু কিছুক্ষণ পরে ও ঠিক হয়ে যায় । জন্ম থাকেই ওর অভ্যাস আলাদা । বর্তমানে ও ওর অভ্যাস গুলো পরিবর্তনে আনার চেষ্টা করছে । কিছু কিছু পারছে, আবার কিছু কিছু পারছে না । ওর লক্ষ্য এখন আজকের এ পৃথিবীতে টিকে থাকা । ও ভাবে ও কিভাবে টিকে থাকবে ? ও ভাবে, ও ভাবতে থাকে । ও মনে করে ও তো ওই । তাই ও ওর মতো করেই এ বিশ্বে টিকে থাকবে, ওর শেষ নিঃশ্বাস পর্যন্ত ।

About the Author তানভীর এহসান

আমি লেখা-লেখির প্রয়াসী।

follow me on:

Leave a Comment: